গণপরিবহন চালুর দাবিতে জামালপুরে স্মারকলিপি প্রদান


লিখেছেন:
পাবলিশ হয়েছে: মে ০৫, ২০২১

গণপরিবহন চালুসহ তিনদফা দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে জামালপুর জেলা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়ন। দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে ৪ মে দুপুরে জেলা প্রশাসক মুর্শেদা জামানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

এ সময় জামালপুর জেলা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাহবুব আনাম বাবলা, সাধারণ সম্পাদক মো. মসিউর রহমান বাবু ও যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মো. ছানোয়ার হোসেন ছানু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে সীমাহীনভাবে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বৃদ্ধি পাওয়ায় জীবন বাঁচানোর জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আমাদের দেশেও সরকার কর্তৃক লকডাউন ঘোষণা করা হয়। আমরাও লকডাউনের বিরোধীতা করছিনা। চলমান লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিল্প প্রতিষ্ঠান, শপিং মল, বাজার, অফিস, আদালত শিথিল করা হয়েছে। গণপরিবহন বন্ধ করার কথা থাকলেও লক্ষ্য করা যাচ্ছে যাত্রী সাধারণ অটোরিকশা, কার, মাইক্রোবাস, মিনিট্রাক এবং নদীপথে স্প্রীটবোড, ইঞ্জিনচালিত নৌকায় ধারণ ক্ষমতার বেশি যাত্রী অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে যাতায়াত করছে। অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে চলাচল মোটেও নিরাপদ নয়। এ সকল যানবাহনে যাত্রী সাধারণ দূর-দূরান্তে চলাচলের ফলে সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। অন্যদিকে যাত্রীদের অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করেও নানা হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। গণপরিবহণ ব্যতিত সড়ক পথে সকল যানবাহন চলছে। গণপরিবহণ শ্রমিকদের ৭০ লাখ পরিবার বর্তমানে অভুক্ত অবস্থায় দিনযাপন করছে। এমতাবস্থায় তিনটি শর্ত সাপেক্ষে গণপরিবহণ চলাচলের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছেন বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

শর্তগুলো হলো- স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন ও পণ্য পরিবহন চলাচলের ব্যবস্থা গ্রহণ, সড়ক পরিবহন শ্রমিকদের আর্থিক অনুদান ও খাদ্য সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ এবং টার্মিনালগুলোতে শ্রমিকদের জন্য ১০ টাকা কেজি ওএমএস এর চাল বিক্রির ব্যবস্থা গ্রহণ।


মন্তব্য লিখুন

আপনার ই-মেইল কেউ দেখতে পারবে না!

আরো পড়তে পারেন