বকশীগঞ্জে গৃহবধু স্বপ্না বেগমের মরদেহ উদ্ধার


লিখেছেন:
পাবলিশ হয়েছে: জুলা ১৫, ২০২১

জামালপুরের বকশীগঞ্জে স্বপ্না বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) ভোর সাড়ে ছয় টার দিকে উপজেলার নিলক্ষিয়া ইউনিয়নের বিনন্দরচর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে স্বপ্নার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

স্বপ্না বেগমের স্বামী মো: মিজান ওই গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে। মো: মিজান পেশায় একজন কৃষক। স্বপ্না বেগম শেরপুর জেলার শ্রীবরদী থানার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের সাতিয়াডাঙ্গা গ্রামের সফল হকের কন্যা।

স্বপ্না বেগমের চাচা খুরশেদ হক এ প্রতিবেদকে মোবাইল ফোনে জানান, ৫ বছর আগে স্বপ্না বেগমের সাথে মিজানের বিয়ে হয়। আজ ভোরে হঠাৎই মিজান মোবাইল ফোনে তাকে স্বপ্না বেগমের মৃত্যুর খবর জানালে তারা সবাই বকশিগঞ্জে আসেন। আসার পর স্বপ্না বেগমের মরদেহ বাড়ির উঠানে দেখতে পান। গলায় আঘাতের চিহ্ন দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয় স্বপ্নার পরিবার।

বকশিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

ওসি সম্রাট আরো জানান, ঘটনার পর থেকেই স্বপ্না বেগমের স্বামীসহ বাড়ির সবাই পলাতক রয়েছে। তবে ঘটনাস্থল থেকে স্বপ্না বেগমের শাশুড়ি মনিলা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। এখনো মৃত্যুর কারন সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি। মো: মিজান ও স্বপ্না বেগমের সংসারে কোনো সন্তান ছিলো না বলে জানা যায়।


মন্তব্য লিখুন

আপনার ই-মেইল কেউ দেখতে পারবে না!

আরো পড়তে পারেন